December 3, 2018

বাংলাদেশের প্রথম ফর্মুলা রেসিং কার!

এদেশের রাস্তায় রেসিং কার ছুটবে- কল্পনা করতে পারেন? রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (রুয়েট) এর ক্যাম্পাসে হাঁটলে এই দৃশ্য কিন্তু দেখেও ফেলতে পারেন! Team Crack Platoon নামের রুয়েটের ৩৬ জন তরুণ-তরুনীর একটি দল এই স্বপ্নটি বাস্তবায়ন করতে চলেছে। ১৯৭১ এর সেই গেরিলা দল ক্র্যাক প্ল্যাটুনের দেশপ্রেমের থেকে অনুপ্রেরিত হয়ে ২০১৫ সালে তাদের মধ্যে জাগ্রত হয় দেশের প্রতি কর্তব্যের চেতনা।
তাই দেশের অটোমোবাইল শিল্পকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার প্রত্যয়ে এ প্রকল্পের শুরু ২০১৭ সালে।। বাংলাদেশের অটোমোবাইলের ইতিহাসের প্রথম ফর্মুলা স্টুডন্ট রেসিং কার তৈরির দাবিদার তারাই। মজার ব্যাপার হলো গাড়িটির সবকিছুই রুয়েটের ল্যাবে শিক্ষার্থীদের হাতে তৈরি করা। কম খরচে অর্থনৈতিক প্রতিকূলতা ও নানা ধরনের জটিলতা পেরিয়ে একটি ব্যবসাসফল ডিজাইন তৈরি ছিল তাদের মূল লক্ষ্য। ২০১৭ সালে ‘ফর্মুলা স্টুডেন্ট জাপান’ প্রতিযোগিতায় জাপানে বাংলাদেশেকে প্রতিনিধিত্ব করে। যেই প্রতিযোগিতায় তাদের স্পন্সর ছিল রানার অটোমোবাইলস। তাদের বানানো রেসিং কারটি গত অক্টোবরে পাড়ি জমানোর কথা ছিল ভারতের ফ্যাটারনিটি অফ মেক্যানিকাল আ্যন্ড অটোমোটিভ ইঞ্জিনিয়ার্স আয়োজিত FFS INDIA ২০১৮ প্রতিযোগিতায়। কিন্তু স্পন্সর জটিলতায় তারা সেখানে অংশ নিতে পারে নি। কিন্তু তারা হাল ছাড়ে নি। এবার তারা নেমেছে ফরমুলা স্টুডেন্ট ইলেক্ট্রিক কার বানানোর মিশনে। গোটা বিশ্বের নামকরা সব বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে পাল্লা দিতে। টিম ক্র্যাক প্ল্যাটুন স্বপ্ন দেখে একদিন বাংলাদেশকে আর নির্ভর হতে হবে না আমদানিকৃত অটোমোবাইলের উপর বরং বাংলাদেশরই থাকবে নিজস্ব ম্যানুফ্যাকচারিং কোম্পানি যার থেকে বিশ্বমানের অটোমোবাইল যানবাহন রপ্তানি করা হবে। তবে যেই চেতনা থেকে টিম ক্র্যাক প্ল্যাটুনের সৃষ্টি, সফলতা তাদের অনিবার্য হোক; গড়ে উঠুক এক নতুন বাংলাদেশ, Positive Bangladesh এর এটাই কামনা। #TeamCrackPlatoon #SpreadPositivity #PositiveBangladesh#WeArePositiveBangladesh #P2PChallenge